রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:০১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বান্দরবানে সকল সম্প্রদায়ের অংশগ্রহণে পহেলা বৈশাখ পালিত সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব পাহাড়ে বর্ণিল আয়োজনে শুরু হল সাংগ্রাই উৎসব যৌথ অভিযানের কারণে রুমা উপজেলায় পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারী নতুন ভোরকে স্বাগত জানিয়ে পাহাড়ে শুরু হলো বৈসাবী উৎসব বান্দরবানে যৌথ বাহিনীর অভিযানে আরো ৩ জন গ্রেফতার বান্দরবানের রুমায় সোনালী ব্যাংক লুট, ম্যানেজার অপহরণ বান্দরবানে বিপন্ন প্রজাতির ২টি ভাল্লুকের বাচ্চা উদ্ধার, আটক- ১ ফরেস্টার সাজাদ্দুজামান সজল হত্যার প্রতিবাদে বান্দরবানে মানববন্ধন বান্দরবানের দূর্গম এলাকায় সেনাবাহিনীর চিকিৎসা সেবা প্রদান

বান্দরবানের ২৩ ইটভাটার মালিককে ৩১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা

সোহেল কান্তি নাথ, নিজস্ব প্রতিনিধি বান্দরবান
বান্দরবানের লামায় ২৩ ইটভাটার মালিককে ৩১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) পরিবেশের ক্ষতিসাধন করে অবৈধভাবে পাহাড় কাটার অপরাধে বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষন আইনে এ জরিমানা করা হয়।

জানা যায়, বেশ কিছুদিন ধরে লামা উপজেলার ফাইতং ইউনিয়নে ব্যাপকভাবে পাহাড় কেটে ব্রিকফিল্ড তৈরি করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পরিবেশ অধিদপ্তরের একটি টিম অভিযান পরিচালনা করে। এসময় কোন রকম অনুমতি না নিয়ে পরিবেশের ক্ষতি করে পাহাড় কাটার দ্বায়ে পরিবেশ আইনে ২৩ ইটভাটার মালিককে ৩১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করা হয়। জরিমানাকৃত ব্রিকফিল্ড গুলোর মধ্যে এফএসি ব্রিক্স এর মালিক ফরিদুল আলমকে ১ লক্ষ বিশ হাজার, এমএমবি ব্রিক্স এর মালিক ফরিদ আহম্মদকে ২ লক্ষ বিশ হাজার, সেভেনবিএম ব্রিক্স এর মালিক কবির আহম্মদকে ১ লক্ষ, এসএবি ব্রিক্স এর মালিক শাহ আলমকে ১ লক্ষ, রায়হানকে ১ লক্ষ ৫৫ হাজার, ইবিএম ব্রিক্স এর মালিক মোজাম্মেল হককে ১ লক্ষ ৩০ হাজার, বিএমডব্লিউ ব্রিক্স এর মালিক মিজানকে ১ লক্ষ ৪০ হাজার, এমবিআই ব্রিক্স এর মালিক মাহমুদুল হককে ১ লক্ষ ২০ হাজার, কেবিসি ব্রিক্স এর মালিক মোস্তাককে ১ লক্ষ, এমএইচবি ব্রিক্স এর মালিক আজিজ উদ্দিনকে ১ লক্ষ ২০ হাজার, এবিসি ব্রিক্স এর মালিক বেলাল হোসাইনকে ১ লক্ষ, এসএমবি ব্রিক্স এর মালিক হাবিবুর রহমানকে ১ লক্ষ ৫০ হাজার, ওয়াইএসবি ব্রিক্স এর মালিক মহিউদ্দিনকে ১ লক্ষ, খায়রুদ্দিন মাস্টারকে ১ লক্ষ ২০ হাজার, বিবিএম ব্রিক্স এর মালিক এহসানুল হককে ১ লক্ষ ৫০ হাজার, ইউএমবি ব্রিক্স এর মালিক মোক্তার আহম্মদকে ১ লক্ষ ৭০ হাজার, ডিএমবি ব্রিক্স এর মালিক নাজেম উদ্দিনকে ১ লক্ষ ৮০ হাজার, ইউবিএম ব্রিক্স এর মালিক ওয়ালী উল্লাহকে ১ লক্ষ ৪০ হাজার, ইউবিএম ব্রিক্স এর মালিক মুজিবুল হককে ১ লক্ষ ২০ হাজার, এমবিএম ব্রিক্স এর মালিক মহিউদ্দিনকে ১ লক্ষ ৪০ চল্লিশ হাজার, ৩এমবি ব্রিক্স এর মালিক মোক্তার আহমদকে ১ লক্ষ ৮০ হাজার, এসবিডব্লিউ ব্রিক্স এর মালিক গিয়াস উদ্দিনকে ১ লক্ষ ৬০ হাজার, ফাইভবিএম ব্রিক্স এর মালিক জোনায়েদকে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা দেয় পরিবেশ অধিদপ্তর।

এ বিষয়ে ফাইতং ইটভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কবির খান বলেন, বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের জন্য আমরা এই ইটভাটা গুলো পরিচালনা করি। এই ইটভাটাগুলোতে প্রায় ৭ থেকে ৮ হাজার শ্রমিক রয়েছে। ৫শতটির উপরে পরিবারের মানুষ জনের আয় রোজগার হয়। এত টাকা জরিমানা করলে আমরা কিভাবে ইটভাটা পরিচালনা করবো। কত টাকাই ভাবে এখানে লাভ হয়। এভাবে জরিমানা করতে থাকলে আমরা ভবিষ্যতে আর ইটভাটা না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বান্দরবান পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ফখর উদ্দিন বলেন, গত ৪ অক্টোবর জেলা ও বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তর যৌথভাবে লামা ফাইতং ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানকালে প্রায় ১ লাখ ঘনফুট পরিমাণে পাহাড় কাটার সত্যতা পান। ইটভাটার আশেপাশে ৩০ একর জুড়ে বিভিন্ন স্থান থেকে মাটি কেটে সাবাড় করে ফেলেছেন ইটভাটা মালিকরা। পাহাড় কাটার সত্যতা পেয়ে তাদের বিরুদ্ধে জরিমানা করা হয়েছে।

পরিবেশ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) হিল্লোল বিশ্বাস বলেন, বান্দরবানের লামায় অভিযান চালিয়ে পাহাড় কেটে পরিবেশের ক্ষতি সাধন করায় ২৩ ইটভাটার মালিককে ৩১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছি। আমরা তাদেরকে বলেছি, পাহাড় কেটে এধরনের ইটভাটা না করে আধুনিক পদ্ধতির ঝিকঝাক ইটভাটা তৈরী করার জন্য পরামর্শ দিয়েছি। তিনি আরো বলেন- যারাই পরিবেশের ক্ষতি করে অবৈধভাবে ইটভাটা স্থাপন করবে তাদেরকেও জরিমানা করা হবে। আগামীতে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান পরিবেশ অধিদপ্তরের এ কর্মকর্তা।

পোস্টটি শেয়ার করুন:

আপনার মতামত দিন


© All rights reserved © 2021 Dainik Natun Bangladesh
Design & Developed BY N Host BD