রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৫৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বান্দরবানে সকল সম্প্রদায়ের অংশগ্রহণে পহেলা বৈশাখ পালিত সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব পাহাড়ে বর্ণিল আয়োজনে শুরু হল সাংগ্রাই উৎসব যৌথ অভিযানের কারণে রুমা উপজেলায় পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারী নতুন ভোরকে স্বাগত জানিয়ে পাহাড়ে শুরু হলো বৈসাবী উৎসব বান্দরবানে যৌথ বাহিনীর অভিযানে আরো ৩ জন গ্রেফতার বান্দরবানের রুমায় সোনালী ব্যাংক লুট, ম্যানেজার অপহরণ বান্দরবানে বিপন্ন প্রজাতির ২টি ভাল্লুকের বাচ্চা উদ্ধার, আটক- ১ ফরেস্টার সাজাদ্দুজামান সজল হত্যার প্রতিবাদে বান্দরবানে মানববন্ধন বান্দরবানের দূর্গম এলাকায় সেনাবাহিনীর চিকিৎসা সেবা প্রদান

বান্দরবানে এক ভূয়া চিকিৎসক গ্রেফতার

সোহেল কান্তি নাথ, নিজস্ব প্রতিনিধি, বান্দরবান॥
বান্দরবানে ইব্রাহিম আলী (৩৫) নামে এক ভূয়া চিকিৎসক’কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারী) সকালে প্রতারিত এক রোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বান্দরবান জেলা শহরের মধ্যমপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ভূয়া চিকিৎসক দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসক পরিচয়ে ভুল চিকিৎসা দিয়ে রোগীদের সাথে প্রতারণা করে আসছিল বলে জানা যায়।

আইনশৃংখলা বাহিনী ও স্থানীয়রা জানায়, জেলার রুমা উপজেলার গ্যালেংগা ইউনিয়নে আগুনে শরীর পুড়ে যাওয়া এক নারী চিকিৎসার জন্য স্থানীয়দের পরামর্শে ভূয়া চিকিৎসক মোঃ ইব্রাহিম আলীর সাথে যোগাযোগ করেন। তিনি কোমড় পর্যন্ত পুড়ে যাওয়া ¤্রাে জনগোষ্ঠীর নারী পাওরি ম্রো’র চিকিৎসার জন্য ৭০ হাজার টাকায় চুক্তি করেন। প্রথম দফায় ৪৫ হাজার অগ্রীম জমা নিয়ে চিকিৎসা শুরু করেন ভূয়া চিকিৎসক। কিন্তু সাতদিন চিকিৎসার পরও রোগীর কোনো উন্নতি হচ্ছেনা। বরং আরও অবনতি হওয়ায় তাকে প্রথমে বান্দরবান সদর হাসপাতালে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বুধবাররাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় অসুস্থ রোগীর স্বজনরা জানতে পারে ঐ চিকিৎসা ভূয়া ডাক্তার। বিষয়টি বোঝতে পেরে রোগীর স্বামী ঙান ওয়াই ম্রো বাদী হয়ে বান্দরবান সদর থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগ পেয়ে সদর থানা পুলিশ মধ্যম পাড়া এলাকা থেকে ভূয়া চিকিৎসক ইব্রাহিম আলীকে গ্রেফতার করেছেন। গ্রেফতারকৃত ইব্রাহিম আলী কক্সবাজার জেলার ঈদগাঁও বাসিন্দান মোঃ আলীর পুত্র।

রোগির স্বামী ঙান ওয়াই ম্রো বলেন, চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে আমার কাছ থেকে ৪৫ হাজার টাকা নিয়েছে স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য। ভুল চিকিৎসায় স্ত্রীর অবস্থাও এখন সংকটাপন্ন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম জানান, ভিকটিমের আত্মীয়ের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বান্দরবান শহরের মধ্যম পাড়া থেকে ডাক্তার পরিচয় দেয়া ভুয়া এই চিকিৎসককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি কোনো চিকিৎসক সনদ এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। প্রতারণার দায়ে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ভুল চিকিৎসায় পাহাড়ী নারীর অবস্থা এখন সংকটাপন্ন। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করুন:

আপনার মতামত দিন


© All rights reserved © 2021 Dainik Natun Bangladesh
Design & Developed BY N Host BD