সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:২০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ে বসন্ত ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত উদ্ধার হওয়া হারানো ফোন ও প্রতারণার টাকা হস্তান্তর করেছে এপিবিএন জেলা শিক্ষা বিভাগকে হারিয়ে জয়লাভ করেন বান্দরবান জেলা পুলিশ দল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন শরণ এর উদ্যোগে মাতৃভাষা দিবস পালন বান্দরবানে বারি উদ্ভাবিত কৃষি যন্ত্রপাতির পরিচিতি ও প্রশিক্ষণ অনুষ্টিত বান্দরবানে পর্যটকবাহী বাস উল্টে আহত ২০ পর্যটক বান্দরবানে নানা আয়োজনে চলছে সনাতনী ধর্মালম্বীদের সরস্বতী পূজা ভালোবাসা দিবস উপলক্ষ্যে পর্যটকদের ফুল দিয়ে বরণ করলেন প্রথমআলো বন্ধুসভা বান্দরবানে পার্বত্য বক্সিং বাছাই ফ্রেন্ডলি ম্যাচ অনুষ্ঠিত বান্দরবানে মিসকি খাল পরিচ্ছন্নতা অভিযান

বান্দরবানে পর্যটক ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার- ২

সোহেল কান্তি নাথ, নিজস্ব প্রতিনিধি
বান্দরবানের মেঘলা পর্যটন কেন্দ্রে ছিনতাইয়ের ঘটনায় ২ ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহষ্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) শহরের মেঘলা এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। সকালে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিং এ সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার সৈকত শাহীন। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- শহরের হাফেজঘোনা এলাকার বাসিন্দা আব্দুল আলম এর ছেলে আব্দুর রহমান ওরফে বাছা (২৮) ও পর্যটন চাকমা পাড়া এলাকার বাসিন্দা সেলিম এর ছেলে মহিউদ্দিন (২২)।

পুলিশ জানায়, সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় জেলা শহরের মেঘলা পর্যটন কেন্দ্রের ভিতরে এক পর্যটককে একদল ছিনতাইকারী ছুরি দিয়ে আঘাত করে নগদ টাকা, ২টি মোবাইল ফোন, মোটর সাইকেলের কাগজপত্রসহ একটি মানি ব্যাগ নিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত পর্যটককে উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে পাঠানো হলেও পলাতক ছিল ছিনতাইকারীরা। পরে যৌথ অভিযান চালিয়ে বৃহষ্পতিবার সকালে মেঘলা পর্যটন এলাকা থেকে আব্দুর রহমান ওরফে বাছা ও মহিউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় দুটি মোবাইল, ধারালো কেচি ও একটি ধারালো দা। একই ঘটনায় মুন্না নামে আরো এক ছিনতাইকারী পলাতক রয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পুলিশ সুপার সৈকত শাহীন বলেন, মেঘলা পর্যটন কেন্দ্রের ভিতরে ছুরি দিয়ে আঘাত করে এক পর্যটকের কাছ থেকে নগদ টাকা, মোবাইল, মানিব্যাগসহ মোটর সাইকেল এর কাগজপত্র ছিনতাই করে নিয়ে যায় তিন যুবক। পরে মেঘলা এলাকায় যৌথ অভিযান চালিয়ে দুই ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। ঘটনার সাথে জড়িত আরো একজন ছিনতাইকারী এখনো পলাতক রয়েছে। খুবই শীঘ্রই তাকেও গ্রেফতার করতে আমরা সক্ষম হবো। এসময় তিনি আরো বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত আছে বলে স্বীকার করেছেন। তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করে রিমান্ড চেয়ে আবেদন করা হবে।

প্রেস ব্রিফিং এ অন্যান্যদের মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হোসাইন মোহাম্মদ রায়হান কাজিমী, রফিকুল ইসলাম, ডিএসবি বিভাগে সালাহউদ্দিন, সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল জলিল, প্রেসক্লাবে সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হকসহ প্রিন্ট ও ইলেট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

পোস্টটি শেয়ার করুন:

আপনার মতামত দিন


© All rights reserved © 2021 Dainik Natun Bangladesh
Design & Developed BY N Host BD