রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:১৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বান্দরবানে সকল সম্প্রদায়ের অংশগ্রহণে পহেলা বৈশাখ পালিত সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব পাহাড়ে বর্ণিল আয়োজনে শুরু হল সাংগ্রাই উৎসব যৌথ অভিযানের কারণে রুমা উপজেলায় পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারী নতুন ভোরকে স্বাগত জানিয়ে পাহাড়ে শুরু হলো বৈসাবী উৎসব বান্দরবানে যৌথ বাহিনীর অভিযানে আরো ৩ জন গ্রেফতার বান্দরবানের রুমায় সোনালী ব্যাংক লুট, ম্যানেজার অপহরণ বান্দরবানে বিপন্ন প্রজাতির ২টি ভাল্লুকের বাচ্চা উদ্ধার, আটক- ১ ফরেস্টার সাজাদ্দুজামান সজল হত্যার প্রতিবাদে বান্দরবানে মানববন্ধন বান্দরবানের দূর্গম এলাকায় সেনাবাহিনীর চিকিৎসা সেবা প্রদান

রুমায় বিদুৎ লাইন উদ্বোধন কালে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর: ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো জ্বলবে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা

Bandarban MP Pic

মো.শাফায়েত হোসেন/শৈহ্লাচিং মার্মা:
পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন, পাহাড়ের প্রতিটি ঘরে সরকার বিদ্যুতের আলো পৌঁছে দেবে। আমরা দেশের সুষম উন্নয়নে বিশ্বাসী, কাজেই আমাদের লক্ষ্য শুধু শহরেই নয়, তৃণমূলের গ্রামগঞ্জের ঘরে ঘরেও বিদ্যুতের আলো পৌঁছে দেওয়া। পার্বত্য মন্ত্রী আরো বলেন, সারাদেশে ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো জ¦লবে এটা প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা। আলো পৌঁছে দেওয়া প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার একটি অংশ মাত্র এটি। আর তিন পার্বত্য জেলায় ৫৬৫ কোটি টাকার লাইন সম্প্রসারণের কাজ প্রায় সমাপ্ত। আগামী ৫-১০ বছরের মধ্যে যেসব জায়গায় বিদ্যুৎ পৌঁছাবে না সেসব জায়গায় সৌর বিদ্যুৎ লাইন দেয়া হবে। আর এগুলো খুবই উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন। ফ্যান, টিভি ও লাইট জ্বালানো যাবে এই সোলার দিয়ে। শুক্রবার সকালে বান্দরবানের রুমা উপজেলায় মুনলাই পাড়ায় পার্বত্য চট্টগ্রামের বিদ্যুতায়ন প্রকল্পের আওতায় ৯৯ লাখ টাকা ব্যয়ে ফলক উন্মোচন ও বিদ্যুতের সুইচ চেপে বাতি জ¦লিয়ে এ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের উদ্বোধন শেষে তিনি সাংবাদিকদের সাথে এসব কথা বলেন। এর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকীর বছরে মুনলাই পাড়া প্রতিষ্ঠার ৪২বছরে ৬৫ পরিবারের বিদ্যুত পাওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলো। পরে মুনলাই পাড়ায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে যোগ দেন পার্বত্য মন্ত্রী।
এদিকে পার্বত্য মন্ত্রীর সাথে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম কাউসার হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.রেজা সরোয়ার, বিদ্যুৎ বিভাগের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী উজ্জ্বল বড়ুয়া, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান ইউনিটের প্রকল্প পরিচালক মো.আব্দুল আজিজ, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুস সাদাত মোঃ জিললুর রহমান, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান ইউনিটের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মো.ইয়াছির আরাফাত, রুমা উপজেলা চেয়ারম্যান উহ্লাচিং মারমা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও)মো.মামুন শিবলী, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, লক্ষী পদ দাশ, পার্বত্য মন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাদেক হোসেন চেীধুরী, রুমা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শৈমং মারমাসহ সরকারি-বেসরকারি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পার্বত্য মন্ত্রী এর আগে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের প্রায় ৫০কোটি টাকা ব্যয়ে ২১টি প্রকল্প উদ্বোধন করেন। অপরদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিদ্যুতায়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক উজ্জ্বল বড়ুয়া জানান, আগে লোড শেডিং এর বিড়াম্বনায় পড়তে হত গ্রাহকদের। বান্দরবানের পাঁচ উপজেলা নির্মাণ করা হয়েছে সাবস্টেশন। সাবস্টেশনের কারণে আর লোড শেডিং এর বিড়াম্বনায় পড়তে হবে না গ্রাহকদের।
অন্যদিকে বিদ্যুতের সংযোগ পেয়ে খুশি মুনলাই পাড়ার বাসিন্দা রোবেন বম। নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি জানান, আমরা খুব খুশি। আগে থেকেই ফ্রিজ কিনে রেখেছি। মন্ত্রী উদ্বোধনের পরেই এ ফ্রিজ চালালাম। ভাবতেই পারিনি বিদ্যুৎ আসবে। কৃষক থোয়ামলিয়ান বম বলেন, রাতে কুপি নিয়ে অন্ধকারে যেতে অনেক সমস্যা হত। এখন বিদ্যুত এসে গেছে। আর সমস্যা হবে না। রাস্তা-ঘাটে রাতে আলো থাকবে। নাতি নাতনিদের লেখা পড়ায় আর সমস্যা হবে না। অনেক উপকার হইছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান উহ্লাচিং মার্মা বলেন, এটা আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের একটি অংশ। শুধু মুনলাই পাড়া নয় এ বিদ্যুৎ সংযোগ পলিকা পাড়া, রুমাচড় পর্যন্ত যাবে বলে আশস্থ করেছেন মন্ত্রী।

পোস্টটি শেয়ার করুন:

আপনার মতামত দিন


© All rights reserved © 2021 Dainik Natun Bangladesh
Design & Developed BY N Host BD